উত্তরবঙ্গ

লন্ডনের ব্রুনেল বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছেন ডুয়ার্সের চা-বাগানের মেয়ে। চা-বাগান এলাকায় দীপিকাকে ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর করছে রাজ্য।

জলপাইগুড়ি, ২২ সেপ্টেম্বরঃ লন্ডনের ব্রুনেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছেন ডুয়ার্সের প্রত্যন্ত চা-বাগানের আদিবাসী মেয়ে গীতিকা এক্কা। চা-বাগানের প্রথম ছাত্রী হিসেবে তার এই অসাধারণ কৃতিত্বের জন্য বুধবার গীতিকাকে সংবর্ধনা জানালো জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদ। অন্যদিকে, স্বাস্থ্য বিষয়ে পদ্মশ্রী করিমুল হককে এবং খেলার ক্ষেত্রে এশিয়াডে সোনাজয়ী স্বপ্না বর্মনকে ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর করার পর এবার চা-বাগানের কৃতি কন্যা গীতিকাকে চা-বাগান অধ্যুষিত এলাকায়, শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর করতে চলেছে জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদ।

ডুয়ার্সের নাগরাকাটার ভগৎপুর চা-বাগানের বাসিন্দা গীতিকা এক্কা। তাঁর বাবা গণেশ এক্কা ও মা কমলা এক্কা। উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার পর দিল্লিতে পড়াশোনা করে সেখান থেকে বিএসসি পাশ করেছেন গীতিকা। এবার হিউম্যান রিসোর্স অ্যাণ্ড এমপ্লয়মেন্ট রিলেশন নিয়ে লন্ডনের ব্রুনেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার সুযোগ পেয়েছেন চা-বাগানের এই মেধাবী কন্যা। আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর লন্ডনের উদ্দেশ্যে রওনা হচ্ছেন তিনি। ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে তাঁর নতুন অধ্যয়ন। গীতিকার এই অসাধারণ কৃতিত্বের জন্য বুধবার জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদ ভবনে তাঁকে সংবর্ধিত করেন সভাধিপতি উত্তরা বর্মন। উপস্থিত ছিলেন সহ সভাধিপতি দুলাল দেবনাথ সহ অন্যান্যরা। গীতিকার সাফল্য কামনা করেন সকলে।

অন্যদিকে, নিজের জেলা শহরে এভাবে সংবর্ধনা পেয়ে অভিভূত গীতিকা। নিজে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের সুবিধে এখনও পর্যন্ত না নিলেও, রাজ্য সরকারের কন্যাশ্রী, স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড সহ বিভিন্ন রকম শিক্ষা সহায়ক প্রকল্পের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন গীতিকা। সেই সঙ্গে কন্যা সন্তানদের শিক্ষা সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার জন্য উৎসাহিত করার বার্ত দিয়েছেন চা-বাগানের কৃতি কন্যা গীতিকা এক্কা।