উত্তরবঙ্গ

প্রশাসনকে জানিয়েও হয়নি সুরাহা। ভাঙন রোধে পূজার আয়োজন ভাঙনপীড়িতদের।

আলিপুরদুয়ার, ২২ সেপ্টেম্বরঃ স্থানীয় পঞ্চায়েত স্তর থেকে জেলা প্রশাসনকে জানিয়েও যখন কোনো সুরাহা হয়নি। তখন একমাত্র ভরসা ভগবান। তাই নদী ভাঙন রোধে ভগবানের প্রতি ভরসা রেখে মুজনাই ঠাকুরের পূজার আয়োজন করলেন ভাঙন পীড়িত এলাকার বাসিন্দারা। পূজা আরাধনা করে, ঠাকুরের কাছে নদী ভাঙনের হাত থেকে মুক্তি চাচ্ছেন এলাকার মানুষ। এমন-ই দৃশ্য দেখা গেলো বুধবার আলিপুরদুয়ার জেলার ফালাকাটা ব্লকের, জটেশ্বর ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের হেদায়েত নগর এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সংশ্লিষ্ট এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মুজনাই নদী গ্রাস করছে কৃষি জমি। ইতিমধ্যে বিঘার পর বিঘা কৃষি জমি নদী গর্ভে চলে গিয়েছে। ধীরে ধীরে মুজনাই নদীর ভাঙন বেড়েই চলেছে, ফলে এলাকাবাসীর একমাত্র যাতায়াতের রাস্তাটুকুও নদী গর্ভে যেতে চলেছে। এই অবস্থায় স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান, ব্লক ও জেলা প্রশাসনকে জানিয়েও কোনো সুরাহা না হওয়ায় মুজনাই ঠাকুরের পূজায় ব্রতী হয়েছেন ভাঙনপীড়িত এলাকার বাসিন্দারা।