উত্তরবঙ্গ

দাড়িভিটে নিহত ২ ছাত্রের সমাধি বানাতে বাধা তৃণমূলের। অভিযোগ অস্বীকার শাসক দলের।

উত্তর দিনাজপুর, ২০ সেপ্টেম্বরঃ ছেলের সমাধি বানাতে গিয়ে তৃণমূলের বাঁধা। এমনই অভিযোগ করলেন উত্তর দিনাজপুরের দাড়িভিট কান্ডে নিহত তাপস ও রাজেশের পরিবার। সুর চড়ালেন জেলার বিজেপি নেতৃত্বও। যদিও এই অভিযোগ সম্পূর্ন অস্বীকার করেছেন জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

উল্লেখ্য গত ২০১৮ সালের ২০ সেপ্টেম্বরে দাড়িভিট হাই স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ কে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়ে ছিল দাড়িভিট। এই ঘটনায় গুলিতে জখম হয়ে নিহত হয়েছিল দুই ছাত্র তাপস বর্মণ ও রাজেশ সরকার। এই ঘটনায় সেই সময় দাড়িভিট সহ গোটা রাজ্য উত্তাল হয়ে উঠেছিল। রাজ্যজুড়ে আন্দোলনে নেমে পড়েছিল ছাত্র সমাজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। তার পরের বছর থেকেই বিজেপির তরফ থেকে ২০ সেপ্টেম্বর দিনটিকে ভাষা দিবস হিসাবে পালন করার ঘোষণা করে। গত তিন বছর ধরে এই দিনটিতে ভাষা দিবস হিসেবে পালন করে বিজেপি নেতৃত্বরা। আজও দাড়িভিটে একাধিক বিজেপি নেতৃত্বরা রাজেশ তাপসের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান ও তাদের সমাধিতে গিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়।

শ্রদ্ধা জানানোর পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি তৃণমূলের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তোলেন নিহতদের পরিবারের তরফ থেকে। নিহত ছাত্র তাপস বর্মনের মা মঞ্জু বর্মন এর অভিযোগ, ছেলের সমাধি বানানোর কাজ শুরু করা হয়েছিল তবে তৃণমূলের তরফ থেকে সে কাজ আটকে দেওয়া হয়, বাধা দেওয়া হয়, এমনটাই অভিযোগ তোলেন তিনি। এবং তিনি এখনও সিবিআই তদন্তের দাবীতে অনড় রয়েছেন বিচার পাওয়ার আশায়। তৃণমূলের বিরুদ্ধে একেই অভিযোগ নিহত ছাত্র রাজেশ সরকারের বাবা নীলকমল সরকারের।

অন্যদিকে এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল কংগ্রেস। পন্ডিতপোতা ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃনমুল নেতা মহম্মদ রাসিদ আলম জানিয়েছেন, কোনো তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা সমাধির বানানোর কাজে বাধা দেয়নি। বিজেপি এটাতে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে। তৃণমূল কংগ্রেস সাধারন মানুষের কাজ করে থাকে, কোনো কাজে বাধা দেয়না। এই অভিযোগ সমস্ত ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন তিনি।