উত্তরবঙ্গ

তৃণমূলের সভাপতি বদল হতেই, ঠিকানা বদলালো জলপাইগুড়ি তৃণমূল পার্টি অফিসের।

জলপাইগুড়ি, ২০ সেপ্টেম্বরঃ জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের সভাপতি বদল হতে নতুন করে জেলা পার্টি অফিস স্থান বদল হল। সোমবার জলপাইগুড়ির বাবু পাড়ার বাবুঘাট এলাকায় নবনির্মিত পার্টি অফিসের উদ্বোধন হয়। যাগযজ্ঞ সহ নানান ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দ্বারোদঘাটন হল তৃণমূলের নতুন কার্যালয়ের। নতুন কার্যালয়ের দ্বারোদঘাটন করেন তৃণমূলের জলপাইগুড়ি জেলা সভানেত্রী মহুয়া গোপ। এদিনের অনুষ্ঠানে জেলা সভানেত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা চেয়ারম্যান বিধায়ক খগেশ্বর রায়, জেলা যুব তৃণমূলের সভাপতি সৈকত চট্টোপাধ্যায়, আইএনটিটিইউসি জেলা সভাপতি রাজেশ লাকরা, মহিলা তৃণমূলের সভানেত্রী নূর জাহান বেগম। উপস্থিত থাকতে দেখা যায়নি প্রাক্তন জেলা সভাপতি কৃষ্ণ কুমার কল্যাণী, সৌরভ চক্রবর্তীকে।

এই প্রসঙ্গে জেলা সভানেত্রী মহুয়া গোপ বলেন, রাজ্যের নির্দেশে নতুন পার্টি অফিস করা হল বাবু পাড়াতে। জলপাইগুড়ির ৫ বিধানসভার দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা নেতৃরা সকলেই উপস্থিত আছেন। সবাই একসূত্রে বাধা থেকেই দলের কাজ করব। এই নতুন অফিসে নিয়মিত আসবেন বলেও জানান মহুয়া গোপ। এদিকে যুব তৃণমূলের জেলা সভাপতি সৈকত চট্টোপাধ্যায় বলেন, আমাদের দল ঐক্যবদ্ধ পরিবার। ২০২৪ সালে মোদী ও অমিত শাহকে দিল্লি থেকে ভাগাতে হবে, এই লক্ষ্যেই তারা এগিয়ে চলেছেন।