রাজ্য

শুরু হচ্ছে বাগডোগরায় বিমান চলাচল, সপ্তাহে চলবে মাত্র ৮ টি বিমান

ডিজিটাল ডেস্ক, ২৭ মেঃ দেশ জুড়ে ২৫ জুন থেকে দেশের মধ্যে বিমান চলাচল শুরু হলেও, রাজ্যে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুরু হচ্ছে বিমান ওঠানামা। রাজ্যের কলকাতা এবং বাগডোগরা বিমান বন্দর থেকে ২৮ শে মে চালু হচ্ছে উড়ান।

এই নিয়ে রাজ্যের দুই বিমান বন্দরেই আগে থেকে সমস্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যাত্রীরা কিভাবে বিমান বন্দরে ভেতরে প্রবেশ করবেন, কিভাবে বিমান অবতরণের পর তারা নিজ নিজ এলাকায় ফিরে যাবেন, সে নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তর এবং সংস্থাগুলির সঙ্গে বৈঠক করে নীল নকশা তৈরী হয়ে গিয়েছে। অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রক এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রকের নির্দেশিকা মেনে বিমান বন্দরে যাত্রী প্রবেশের সময় মার্কিং, টেম্পারেচার স্ক্রিনিং, টাচ ফ্রি স্যানিটাইজেশন, শু ডিসইনফেকশন, আরোগ্য সেতু অ্যাপ স্ক্যানিং করে সি আই এস এফ চেকিং পয়েন্টে পৌছে যাবেন যাত্রীরা।

এরপর হিউম্যান টাচ ফ্রি সিকিউরিটি চেকিং সেরে ব্যাগেজ স্ক্যানিং করার পর একটি কোড পাঠিয়ে দেওয়া হবে সংশ্লিষ্ট যাত্রীদের মোবাইলে। এই মোবাইল কোড দেখিয়েই ডেস্টিনেশন এয়ারপোর্টে তাদের ব্যাগেজ পেয়ে যাবেন যাত্রীরা। অন্যদিকে ডেস্টিনেশন এয়ার পোর্টে পৌছনো যাত্রীরা থার্মাল স্ক্রিনিং সহ সমস্ত পরীক্ষা নীরিক্ষার পরই বিমান বন্দরের বাইরে বেরানোর অনুমতি পাবেন। যারা সেই পরীক্ষায় পাশ করতে পারবেন না তাদের থাকতে হবে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ারেনটাইনে। অন্যদিকে, বিমান বন্দরে আসা সমস্ত যাত্রীরা একটি সেলফ ডিক্লারেশন ফর্ম ফিল আপ করে, তবেই বাড়ীতে যাওয়ার অনুমতি পাবেন। বাড়ীতে যাওয়া পর, তাদের হোম কোয়ারানটাইনে থাকতে হবে।

কলকাতা বিমানবন্দরে ভেতরেই কোয়ারানেটাইন সেন্টারের ব্যবস্থা করা হলেও, বাগডোগরা বিমানবন্দরে এমন কোন ব্যবস্থা করা হয়নি বলেই বিমান বন্দর সূত্রে জানা গিয়েছে। যাদের কোয়ারেনটাইনে রাখার দরকার পড়বে, তাদের জন্য রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন, দার্জিলিং জেলা শাসক এস পুণ্যম বালম। বাগডোগরা বিমান বন্দরে আসা যাত্রীরা স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর, তাদের বাড়ীতে পৌছে দেওয়ার জন্য এয়ারপোর্ট ট্যাক্সি অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে ইতিমধ্যেই একটি বৈঠক সেরে ফেলেছেন এ আর টি ও। সেই বৈঠকে সমস্ত চালকদের প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা শাসক।

সাধারণতঃ বাগডোগরা বিমান বন্দরে প্রতিদিন ৩৬ থেকে ৩৭ টি বিমান চলাচল করে। গরমের মরশুমে তা বেড়ে হয় ৪২ টি। তবে, করোনা পরিস্থিতিতে বাগডোগরা বিমান বন্দরে সপ্তাহে মাত্র ৮ টি বিমান অবতরণ করবে বলে জানিয়েছেন এয়ারপোর্ট ডিরেক্টর সুভ্রমণি পি। তবে, প্রথমদিন অর্থাৎ ২৮ মে, মোট ৬ টি বিমান ওঠানামা করবে। ২৮ মে সকাল ১০ টায় বাগডোগরা বিমান বন্দরে প্রথম বিমান অবতরণ করবে। SG-8903 নম্বরের বিমানটি দিল্লি থেকে এসে ফের ১০ টা ৪৫ মিনিটে (SG-8904) দিল্লির উদ্দেশ্যে ফিরে যাবে। প্রথমদিনের শেষ বিমান GE-5023 নম্বরের দিল্লি-বাগডোগরা বিমানটি বিকেল ৪ টা ৪০ মিনিটে অবতরণ করে ফের বিকেল ৫ টা ৩০ মিনিটে দিল্লির উদ্দেশ্যে ফিরে যাবে।

তবে, প্রথমদিন কলকাতা বা গৌহাটি সংযোগকারী কোন বিমান থাকছে না। বাগডোগরা এবং কলকাতার মধ্যে রবিবার (৩১ মে) একটি মাত্রা বিমান চলাচল করবে। AI-721 নম্বরের বিমানটি বিকেল ৪ টা ২০ মিনিটে বাগডোগরায় পৌঁছে, সন্ধ্যা ৬ টা ১০ মিনিটে ফের কলকাতার উদ্দ্যেশ্যে ফিরে যাবে। অন্যদিকে, দিল্লি থেকে বাগডোগরা হয়ে গৌহাটির মধ্যে একটি মাত্র বিমান বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার (২৮ এবং ২৯ মে) চলাচল করবে। দিল্লি থেকে বাগডোগরা হয়ে ডিব্রুগড়ের মধ্যে একটি মাত্র বিমান শনিবার এবং রবিবার (৩০ এবং ৩১ মে) চলাচল করবে। তবে, চেন্নাই, দিল্লি, বেঙ্গালুরু এবং বাগডোগরার মধ্যে প্রতিদিনই বিমান চলাচল করবে।

অন্তঃসত্ত্বা দাদার শ্যালিকাকে পরিকল্পনা করে খুন, আমৃত্যু কারবাসের সাজা... Read More..

EXCLUSIVE - করোনা মোকিবালায় OSD-এর বদলে ডিরেক্টর পর্যায়ের আধিকারিককে দায়িত্ব... Read More..

সংক্রমণ ঠেকাতে শিলিগুড়ির বেশ কয়েকটি বাজার বন্ধের সিদ্ধান্ত, শহরে বাড়ছে... Read More..

করোনায় মৃত্যু শিলিগুড়িতে, সংক্রমণ আরও ২৩ জনের. করোনা বৈঠকে ডাক না পাওয়ার... Read More..

করোনা মুক্ত অশোক ভট্টাচার্য Read More..